বাংলাদেশি app দিয়ে টাকা ইনকাম

বাংলাদেশি app দিয়ে টাকা ইনকাম

ইদানিং গুগলে বাংলাদেশি app দিয়ে টাকা ইনকাম করার উপায় এর সম্বন্ধে বিপুল সার্চ করা হচ্ছে যার কারণে আজকের এই আর্টিকেলটি নিয়ে আসলাম। অনেকেই জানতে চাচ্ছেন বাংলাদেশি এপ্লিকেশন দিয়ে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়।  এই লেখা টি সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়লে আপনারা এমন কয়েকটি অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে জানবেন  যেগুলোতে আপনাদের উপার্জনের টাকা বিকাশের মাধ্যমে পেমেন্ট  নিতে পারবেন।

বাংলাদেশ দিয়ে অনলাইনে টাকা ইনকাম 

বর্তমানে আমরা সকলেই স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকি।  আমাদের হাতে থাকা মোবাইল ফোনটি দিয়ে ছোট ছোট মাইক্রো জব করে কিছু টাকা ইনকাম করা সম্ভব। অনেকেই জানতে চেয়েছেন বাংলাদেশি app দিয়ে টাকা ইনকাম করার পদ্ধতি এবং কি কি অ্যাপ দিয়ে টাকা ইনকাম করা যায়।

 এই লেখাটিতে আমরা এই বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।  আপনারা যদি অনলাইনের মাধ্যমে বাংলাদেশি মোবাইল এপ্লিকেশন দিয়ে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে এবং সঠিকভাবে কাজ করতে হবে।

 আমরা পূর্বে জেনেছি বিদেশি কিছু টাকা ইনকাম করার অ্যাপস সম্পর্কে কিন্তু ঐ সকল  অ্যাপ্লিকেশনে টাকা ইনকাম করার পরে উইথড্রো দিতে গেলে ঝামেলায় পড়তে হয়। সাধারণত ঐসকল অ্যাপ্লিকেশনগুলোতে আমাদের ডলার পেমেন্ট করে কিন্তু ওই ডলারগুলো ভাঙ্গানোর জন্য পেপাল এর প্রয়োজন হয় যা বাংলাদেশ ব্যবহার করা নিষিদ্ধ।

 তাই অনেক সময় বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে পেমেন্ট গুলো ভাঙাতে গেলে টাকা না পাবার সম্ভাবনা থাকে। আপনারা যদি বাংলাদেশি অ্যাপগুলো থেকে টাকা ইনকাম করেন তাহলে আপনারা সরাসরি বিকাশ অথবা নগদ এর মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেন।  যেখানে টাকা উইথড্রো পাওয়ার ১০০%  সম্ভাবনা থাকে। 

সত্যিই কি বাংলাদেশি অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করা যায়?

অনেকের মনে এই প্রশ্ন থাকতে পারে সত্যিই কি বাংলাদেশি মোবাইল অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করা সম্ভব?  হ্যাঁ বর্তমানে বাংলাদেশে অনেক মোবাইল অ্যাপ আছে যেগুলো থেকে আপনার আর রেফার বা এড দেখে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।  এবং সেই এড গুলো খুবই জনপ্রিয় ও পেমেন্ট দেওয়ার সম্ভাবনা ১০০%

আপনাদের মাঝে সেই অ্যাপ গুলো সম্পর্কে আলোচনা করলেই আপনারা বুঝতে পারবেন আসলে তারা কতটা বিশ্বাসযোগ্য। বিদেশি অ্যাডগুলোতে অনেক সময় ডলার কনভার্ট করার ক্ষেত্রে টাকা হারিয়ে ফেলার সম্ভাবনা থাকে কিন্তু বাংলাদেশ এর ক্ষেত্রে পুরোটাই উল্টো।

 এখান থেকে আপনারা খুব সহজেই আপনার বিকাশ একাউন্টে পেমেন্ট নিতে পারবেন।  মূলত বাংলাদেশ থেকে টাকা ইনকাম করার যে অ্যাপ গুলো তাদের  কাজ হল রেফার।  আপনি রেফার করে বা ছোট কোন মাইক্রো-জব এর মাধ্যমে ওই সকল এ্যাপলিকেশন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কিভাবে বাংলাদেশি অ্যাপগুলো থেকে টাকা ইনকাম করবেন

বাংলাদেশি অ্যাপগুলো থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য অবশ্যই আপনাকে ওই অ্যাপ এ কাজ করতে হবে।  আপনার মোবাইলে প্লে স্টোর থেকে অ্যাপ গুলো ডাউনলোড করে আপনার বন্ধুদের রেফার এর মাধ্যমে অথবা ওখানে অ্যাড দেখা বা  সার্বে এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ও বেশির ভাগ অ্যাপ্লিকেশনে আপনারা রেফার এর মাধ্যমে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এছাড়াও  কিছু কিছু অ্যাপ্লিকেশনে আপনারা মাইক্রো জব এর মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন তবে ইনকামের সবথেকে বড় মাধ্যম হলো রেফার। 

অ্যাপগুলো থেকে কত টাকা ইনকাম করা সম্ভব 

এই সকল বাংলাদেশী ইনকামের অ্যাপ্লিকেশনগুলো ব্যবহার করে আপনি মাসে কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন তা সঠিকভাবে বলা সম্ভব নয় কিন্তু আপনি যদি সঠিকভাবে কাজ করে থাকেন তাহলে প্রতি মাসে ১০-২০  হাজার টাকার মতো বা তার থেকেও বেশি ইনকাম করা সম্ভব।

 এই সকল অ্যাপ্লিকেশনে কাজ হলো রেফার, আপনি যত বেশি রেফার করতে পারবেন তত বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আনুমানিকভাবে প্রত্যেকটি রেফারে আপনারা ৫০-৩০০ টাকার মত ইনকাম করতে পারবেন।  তাই বলা যায় এই সকল অ্যাপ গুলোর মাধ্যমে কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন তা সম্পূর্ণ নির্ভর করবে আপনার কাজের উপরে।

কি কি বাংলাদেশি অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করা সম্ভব

এবার চলুন জেনে নেয়া যাক বাংলাদেশে কি কি মোবাইল অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করা সম্ভব। নিচে আমরা যে সকল এ্যাপলিকেশন সম্পর্কে আলোচনা করেছি এগুলোর মাধ্যমে আপনারা খুব সহজেই রেফার এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করে বিকাশ বা নগদ এর মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেন।

  1. Bkash 

বিকাশ অ্যাপ্লিকেশন এর সাথে পরিচিত নেই এমন লোক খুঁজে পাওয়া  যাবে কিনা সন্দেহ। আমরা সকলেই জানি বর্তমানে টাকা আদান প্রদানের সবথেকে বড় অ্যাপ্লিকেশন বা মাধ্যম হচ্ছে বিকাশ।  পূর্বে বিকাশ শুধুমাত্র ডায়াল এর মাধ্যমে সার্ভিস দিত কিন্তু বর্তমানে বিকাশ তাদের মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন নিয়ে এসেছে।

 এবং সাথে সাথে নিয়ে এসেছে টাকা ইনকামের অন্যতম একটি মাধ্যম। বিকাশ তাদের গ্রাহকদের জন্য টাকা ইনকামের অন্যতম একটি মাধ্যম নিয়ে এসেছে আর সেটি হল রেফারেন্স প্রোগ্রাম।  এই প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করে আপনি আপনার বন্ধুদের রেফার করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

  1. Nagad 

বর্তমানে বাংলাদেশের টাকা আদান প্রদানের অন্যতম একটি সেরা অ্যাপ্লিকেশন হোসেন নগদ। নগদ ও তাদের গ্রাহকদের জন্য টাকা ইনকামের অন্যতম আরেকটি মাধ্যম নিয়ে এসেছে সেটি হল রেফারেন্স প্রোগ্রাম এবং অ্যাপস লগইন।

 আপনারা যদি পূর্বে নগদ এর এপ্লিকেশন ব্যবহার করে না থাকেন তাহলে প্রথমবার নগদ অ্যাপ্লিকেশনের লগইন এর জন্য আপনারা বোনাস পাবেন এছাড়া আপনাদের বন্ধুদের নগদ অ্যাপ্লিকেশনে আসার জন্য রেফারেন্স করলেও টাকা পাবেন। বর্তমানে বাংলাদেশি app দিয়ে টাকা ইনকাম এর মাধ্যম হিসেবে নগদ অন্যতম ও জনপ্রিয়।

  1. C-Work

এটি একটি বাংলাদেশী টাকা ইনকাম ওয়েবসাইট এবং অ্যাপস। এখানে আপনারা ছোট ছোট মাইক্রো জব পাবেন যেমন ফেসবুক একাউন্ট ক্রিয়েট, ফেসবুক লাইক কমেন্ট, বিভিন্ন অ্যাড দেখা, সার্ভে পূরণ করা  ইত্যাদি। খুব সহজেই আপনারা এই অ্যাপ্লিকেশন বা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সকলে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

 আপনারা প্রতিদিন যে পরিমাণে কাজ করবেন সে অনুযায়ী আপনাদের পেমেন্ট দেওয়া হবে তাই যত বেশি সময় ধরে কাজ করবেন তত বেশি পেমেন্ট পাবেন। এখান থেকে আপনারা বিকাশ নগদ এর মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেন।

  1. Sheba Bondhu 

এখান থেকেও আপনারা রেফার এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। বিকাশ ও নগদ এর মত এই প্লাটফর্মে আপনারা আপনার বন্ধুদের ইনভাইট করে রেফার এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।  এখানে আপনারা প্রত্যেকটি রেফারে ১০০-১০০০  টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারেন।

  1. Jam Cash 

এটিও একটি বাংলাদেশী ইনকাম অ্যাপ্লিকেশন আপনারা প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারবেন।  অ্যাপটি ডাউনলোড করার পরে প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো প্রদান করে একাউন্ট ক্রিয়েট করে নিতে হবে। এই অ্যাপ্লিকেশন থেকে আপনারা কয়েকটি পদ্ধতিতে টাকা ইনকাম করতে পারবেন-

  • ডেইলি চেকিং
  • স্পিন করে
  • ভিজিট করে
  •  ছোট ছোট গাণিতিক জটিলতার সমাধান করে

এই সকল ছোট কাজগুলো করে এখান থেকে প্রথমে আপনারা ডলার উপার্জন করতে পারবেন।  এবং আপনার একাউন্টে ২০  ডলার সরাসরি বিকাশ  এর মাধ্যমে উইথড্র দিতে পারবেন। অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করার জন্য অবশ্যই ভিপিএন কানেক্ট করতে হবে।

উপরে আমরা যে বাংলাদেশি app দিয়ে টাকা ইনকাম করা সম্পর্কে আলোচনা করেছি এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো ব্যবহার করে আপনারা খুব সহজেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন এবং বাংলাদেশি পেমেন্ট মেথড বিকাশ ও নগদ এর মাধ্যমে টাকা পেমেন্ট নিতে পারবেন। 

আরো পড়তে পারেন : মোবাইল দিয়ে ফাইবারে কাজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *