পুলিশের এসপি হওয়ার যোগ্যতা

আসসালামু আলাইকুম আশা করি আপনারা সকলে খু্ব ভাল আছেন। আজকের আর্টিকেলে আলোচনা করব পুলিশের এসপি হওয়ার যোগ্যতা এবং কত টাকা বেতন পায়, বিবাহিত পুরুষরা কি বিসিএস পুলিশ ক্যাডার হতে পারবে ইত্যাদি। চলুন পোস্টটি শুরু করা যাকঃ

পুলিশের এসপি হওয়ার যোগ্যতা?

সাধারণত বিসিএস পরীক্ষা দেওয়ার মাধ্যমে একজন সরকারি পুলিশ সুপার বা এএসপি হতে পারেন। বাংলাদেশের পুলিশ প্রশাসন বেশ কয়েকটি রেঞ্জে বিভক্ত রয়েছে। আর প্রতিটি রেঞ্জে রয়েছে কয়েকটি সার্কেল। বিশেষ পুলিশ ক্যাডার কর্মকর্তা শুরুতে একটি সার্কেলের মাধ্যমে বিভিন্ন স্থানে কাজ করতে পারেন।

যেমনঃ মেট্রোপলিটন পুলিশ, ট্রাফিক বিভাগ, র‍্যাপিড একশন ব্যাটেলিয়ান, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন, স্পেশাল সিকিউরিটি এন্ড প্রটেকশন ব্যাটালিয়ন, স্পেশাল ডান্স (sb), ক্রিমিনাল ইনভেন্টিগেশন ডিপার্টমেন্ট (cid) ইত্যাদিতে কাজ করতে হয়।

পুলিশ এজেন্সি এজেন্সি অপারেশন (PIO), পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টেশন (PBI), রেলওয়ে পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ,পুলিশ হেডকোয়ার্টার, পুলিশ প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানও কেন্দ্র, ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ ইত্যাদি।

ASP of Police

বিশেষ কোন ক্যাডারকে নিরঙ্কুশভাবে ভাল বা মন্দ বলা যাবে না। তবে প্রতিটির ভিন্ন ভিন্ন সুবিধা ও অসুবিধা রয়েছে। আপনার ব্যক্তিত্ব চাওয়া পাওয়ার সাথে বিভিন্ন ক্যাডারের সুবিধা অসুবিধার দিকটির সমন্বয় করে আপনি আপনার জন্য চেষ্টা ক্যাডার নির্বাচন করতে পারেন।

পুলিশ ক্যাডার

ছোটবেলায় থেকে মুগ্ধ নয়নে হুশ করে বেরিয়ে যাওয়া পুলিশের গাড়ি, পোশাক, র‌্যাংকব্যাজ দেখে আসছেন, দেশী ও বিদেশী লেখকদের উপন্যাস / ফিকশন পড়ার সময় নিজেকে পুলিশ অফিসার হিসেবে ভেবে কল্পনার রাজ্যে ভেসে বেড়িয়েছেন। আর তাই বিসিএস পুলিশ ক্যাডারে যোগদান করে আপনিও হতে পারেন অনেক স্বপ্ন কল্পনার সেই বাহিনীর একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

পুলিশের এসপি হওয়ার যোগ্যতা?

দেশের যেকোন স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি অথবা স্বীকৃত বোর্ড হতে এইচএসসি পরীক্ষা দেওয়ার পর চার বছরের শিক্ষা সমাপনী ডিগ্রী অথবা সামমান ডিগ্রী থাকতে হবে। পুলিশ ক্যাডার হওয়ার যোগ্যতা স্নাতক শেষে করার পরে বিসিএস পরীক্ষায় অবতীর্ণ হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করলে। যেকেউ পুলিশ চয়েস দিতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ ডাটা এন্ট্রি করে কত টাকা আয় করা যায়

পুলিশ ক্যাডার হতে চাইলে পুরুষদের উচ্ছতা ৫ ফুট চার ইঞ্চি ও নারীদের ক্ষেত্রে ৫ ফুট দুই ইঞ্চি বা ৫ ফিট। আর চোখের দৃষ্টি হতে হবে (৬/৬)। সাধারণত বাংলাদেশের পুলিশের ক্ষেত্রে যে পোস্টগুলোতে নিয়োগ দেয়া হয়ঃ

  • সহকারী পুলিশ সুপারিনটেনডেন্ট ( এ এসপি)
  • সাব ইন্সপেক্টর (এস আই)
  • সার্জেন্ট
  • পুলিস কন্সটেবল

এসপির বেতন কত?

এসপির বেতন হল ৳২২,০০০ হাজার টাকা। বেতন স্কেলের নবম গ্রেড অনুযায়ী মূল বেতন হচ্ছে ৳২২,০০০। এর পাশাপাশি বাড়ি ভাড়া এবং অন্যান্য ভাতাও পান।

পুলিশ ক্যাডারের সুবিধা?

  • বিপন্ন মানুষকে সরাসরি সাহায্যর হাত বাড়ানো এবং বিপদমুক্ত করার ক্ষমতা।
  • সার্কেল বা জেলার দায়িত্ব পেলে সুপরিসর সুসজ্জিত বাংলো পাওয়া যায়।
  • সম্প্রতি পুলিশের জন্য নতুন নতুন আবাসিক প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।
  • নূন্যতম ৩ বার জাতীয় সংঘ শান্তি কমিশনে যে বিশ্ব শান্তিতে অবদান রাখার পাশাপাশি নিজে কোটিপতি হওয়ার সুযোগ থাকছে।
  • প্রচুর বিদেশে প্রশিক্ষণ এবং ভ্রমণের সুবিধা থাকে।
  • অন্যান্য ক্যাডারের মতো মূল বেতনে পাশাপাশি বিভিন্ন প্রকার ভাতা পাবেন।
  • যেহেতু অফিসের বাইরে কাজ থাকে সেক্ষেত্রে বেতনের অতিরিক্ত দৈনিক সবচেয়ে বেশি থাকে।
  • ঢাকার বাইরে এর হার ৫০০ টাকা এবং ঢাকায় ৬৫০ টাকা।
  • বিশেষ ভাতাও থাকবে যেমন র্যাবে অতিরিক্ত ৭০%, ট্রাফিকে ৩০%, ডিএমপিতে বিশেষ ভাতা প্রায় ৭০%, সিআইডি পুলিশ হেডকোয়াটার্স এ ৫০% ইত্যাদি।
  • ইউনিফর্ম ভাল না লাগলে সিভিল ড্রেস এসবি, ডিবিতে কাজ করার সুযোগ থাকছে।
  • এছাড়াও পুলিশ কর্মকর্তাদের জন্য এনএসআই, দুদক প্রভৃতি সংস্থা প্রেষনে দায়িত্ব পালনের সুযোগ আছে।
  • আপনি চাকরিতে যোগদানের পর ট্রেনিং শেষে দুই তিনটি থানার সমন্বয়ে গঠিত সার্কেলের দায়িত্ব পাবেন।
  • এরপর পদোন্নতি পেয়ে হবেন এডিশনাল এসপি বা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।
  • এরপর একটি জেলার আইন শৃংখলার দায়িত্ব নিতে পুলিশ সুপার পদের দায়িত্ব পাবেন।
  • এরপর যথাক্রমে এডিশনাল ডিআইজি , ডিআইজি , এডিশনাল আইজ, আইজিপি পদে উন্নীত হবার সুযোগ আপনার জন্য অবধারিত থাকবে ।
  • মেয়েদের অগ্রাধিকারেন ক্ষেত্রে অনেকেই ভুল ধারণা পোষণ করেন যে, পুলিশের চাকরি মেয়েদের জন্য তেমন উপযুক্ত নয়।
  • বাংলাদেশে পুলিশে নারী সদস্য রাজ্যের সম্মান পেয়ে থাকেন, অন্য কোথাও কোন পেশায়ে এমন মর্যাদা তারা ভোগ করেন না।
  • অন্যান্য ক্যাডারদের মতো বিপুলসংখ্যক পুলিশ কর্মকর্তা এখন উচ্চ শিক্ষার জন্য বিদেশ গমন করছেন।
  • পুলিশে ট্রেনিং শেষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পুলিশ সাইন্সেমাস্টার্স দেওয়া হয়।
  • এছাড়াও এফবিআই এর মত সংস্থার সাথেও পড়াশোনা এবং ট্রেনিং এর সুযোগ পাওয়া যায়।
  • ভবিষ্যতে উপরের দিকে পদ সংখ্যা বাড়লে পদোন্নতি আরও দ্রুত ত্বরান্বিত হবে।
  • চার সদস্য পরিবারের জন্য পর্যাপ্ত রেশন দেওয়া হয়।

পুলিশ ক্যাডারের অসুবিধা?

  • কাজের প্রেসার খুব বেশি হয়।
  • শুক্র, শনি বলে কিছু নেই।
  • কখনো কখনো কর্মক্ষেত্রে ঈদের ছুটি নাও পেতে পারেন না।
  • ছুটি তুলনামূলক কম থাকে।
  • পদোন্নতি বিষয়ক জতলতা বিদ্যমান থাকে।

বিবাহিত পুরুষরা কি বিসিএস পুলিশ ক্যাডার হতে পারবে?

বিবাহিত পুরুষরা বিসিএস পুলিশ ক্যাডার হতে পারবে। তবে বিবাহিতরা তাদের বয়স ৩০ বছরের নিচে থাকলে বিসিএস পুলিশ ক্যাডারে আবেদন করতে পারবেন।

তবে কেউ যদি সরকারের অনুমতি ছাড়া বিদেশী নাগরিক বিয়ে করেন তাহলে সে বিসিএসে আবেদন করতে পারবে না। তবে সরকারের অনুমতি নিয়ে বিদেশী নাগরিক বিয়ে করলে বিসিএস পুলিশ ক্যাডারে আবেদন করতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *