ভিডিও এডিটিং কিভাবে শিখব

ভিডিও এডিটিং কিভাবে শিখব

আমাদের আশেপাশে এমন অনেক লোকজন আছে যারা ভিডিও এডিটিং করে ইউটিউবে ভালো সাড়া পাচ্ছে বা তারা মার্কেটপ্লেসে ভিডিও এডিটিং নিয়ে কাজ করতেছে।  চাইলে আমরাও ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখে মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে পারি এজন্য আমাদের সর্বপ্রথম প্রফেশনাল ভাবে ভিডিও এডিটিং শিখতে হবে। ভিডিও এডিটিং কিভাবে শিখব  এই প্রশ্নের উত্তর নিয়ে আজকের আর্টিকেলটি সাজানো।

ভিডিও এডিটিং শেখার পদ্ধতি

ভিডিও এডিটিং কিভাবে শেখা যায় সে সম্পর্কে আমরা আলোচনা করব।  তবে আপনারা যদি ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখতে চান তাহলে আপনাদেরকে এ বিষয়ে সম্পর্কে পরিপূর্ণভাবে জ্ঞান অর্জন করতে হবে, এরপরে ভিডিও এডিটিং শেখার জন্য  কি কি করা প্রয়োজন সে সম্পর্কে জানাবো।

 ভিডিও এডিটিং কয়েক ধরনের হতে পারে যেমন গ্রাফিক্স ভিডিও এডিটিং, নাটক বা মুভি এডিটিং, টিউটোরিয়াল ভিডিও এডিটিং, বিয়ের ভিডিও এডিটিং  ইত্যাদি। ভিডিও এডিটিং এর কাজ শেখার জন্য আমাদের অবশ্যই মোবাইল ফোন বা কম্পিউটার/ ল্যাপটপ এর প্রয়োজন হবে। চলুন আমরা ভিডিও এডিটিং সম্পর্কে একটু বিস্তারিত জেনে আসি।

ভিডিও এডিটিং কি এবং কেন করবেন?

ভিডিও এডিটিং বলতে আমরা বুঝি কয়েকটি ভিডিও ক্লিপ কে একসাথে মিশানো এবং ভিডিওটিকে রং ও সাউন্ড মিশিয়ে সুন্দরভাবে পরিপূর্ণ একটি কনটেন্ট তৈরি করা। আমরা একটি ভিডিওকে  পার্ট পার্ট হিসেবে শুট করি এবং পরবর্তিতে ঐ ভিডিওটিকে পরিপূর্ণ করার জন্য কোন এপ্লিকেশন এর সাহায্যে ভিডিওটিকে মিক্স করি।

যখন কোন একটি নাটক বা মিউজিক ভিডিওর শুটিং করা হয় তখন ওই কনটেন্ট এর প্রত্যেকটি দৃশ্য আলাদা আলাদা ভাবে ধারন করা হয়,  এই দৃশ্যগুলোকে একসাথে মিলিয়ে একটি পরিপূর্ণ কনটেন্ট তৈরি করার জন্য আমাদের ভিডিও এডিটিং করার প্রয়োজন পড়ে।

এক কথায় বলতে গেলে একটি ভিডিওকে পরিপূর্ণ ভাবে উপস্থাপন করার জন্য যেগুলো করা দরকার এডিটিং প্যানেল এ তাকে ভিডিও এডিটিং বলে, যেমন একটি ভিডিওকে মিক্স করা,  ভিডিওতে কালার গ্রেডিং থেকে শুরু করে সাবটাইটেল এনিমেশন এবং অডিও যোগ করা সব কিছু ভিডিও এডিটিং এর অন্তর্ভুক্ত।

আমরা যদি ইউটিউবে কনটেন্ট আপলোড করার চাই তাহলে অবশ্যই আমাদেরকে সেই কনটেন্ট গুলো কে এডিট করতে হবে এছাড়াও যারা ভিডিও এডিটিং করে নিজেদের ক্যারিয়ার দাঁড় করাতে চান তাদেরকে অবশ্যই ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখতে হবে। 

ভিডিও এডিটিং কিভাবে শিখবেন 

প্রফেশনাল ভাবে ভিডিও এডিটিং করার জন্য প্রথমে আপনাকে ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখতে হবে।  আমরা মোবাইল এবং কম্পিউটার উভয় দিয়ে ভিডিও এডিটিং এর কাজ করতে পারি। পরিপূর্ণ ভাবে একজন ভিডিও এডিটর হতে হলে প্রথমে আপনাকে ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখতে হবে এবং এই নিয়ে চর্চা করতে হবে।

 আপনারা চাইলে একবারে ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখতে পারবেন না কিভাবে ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখবেন ধাপে ধাপে আমরা সে সম্পর্কে আলোচনা করব।  পরিপূর্ণ ভাবে একজন ভিডিও এডিটর হিসেবে নিজেকে তৈরি করতে মিনিমাম ১  বছর সময় হাতে নিয়ে নামবেন।

  • নিজেকে মানসিকভাবে তৈরি করা

ভিডিও এডিটিং এর কাজ করার জন্য প্রথমে নিজেকে মানসিকভাবে তৈরি করতে হবে,  এডিটিং এর কাজ হলো খুবই ধৈর্যের বিষয় এবং অনেক সময় ধরে এই কাজ করতে হয়।  অনেকের ধৈর্য কম থাকার ফলে তারা ভিডিও এডিটিং এর কাজ করতে পারে না এবং যদি ভিডিও এডিটিং এর কাজ করতে বসে তাহলে ভালোভাবে কাজটি সম্পন্ন করতে পারে না।

ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখতে হলে আপনাকে প্রচুর কষ্ট করতে হবে এবং এডিটিং এর বিষয় নিয়ে অনেক ঘাটাঘাটি করতে হবে।  ভিডিও এডিটিং কাজ শেখা শুরুর আগে প্রথমে আপনাকে মানসিকভাবে নিজেকে তৈরি করতে হবে।

  • এডিটিং সেটআপ তৈরি

ভিডিও এডিটিং করার জন্য আপনার যেসকল  ইন্সট্রুমেন্ট প্রয়োজন সেগুলো আগে সংগ্রহ করতে হবে যেমন আপনি যদি কম্পিউটার দিয়ে ভিডিও এডিটিং করতে চান তাহলে কম্পিউটারে ভিডিও এডিটিং করার জন্য যা যা প্রয়োজন সেগুলো সংগ্রহ করতে হবে। এডিটিং এর জন্য আপনাকে একটি ভালো কম্পিউটার সিলেক্ট করতে হবে এবং একটি ভালো হেডফোন সাথে রাখতে হবে।

আপনারা যদি মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং করতে চান তাহলে আপনাকে সর্বনিম্ন ৩ জিবি র‌্যামের একটি ফোন ব্যবহার করতে হবে। এছাড়াও মোবাইল দিয়ে ভালোভাবে ভিডিও এডিটিং করার জন্য আপনার সুন্দর একটি হেডফোন এর প্রয়োজন হতে পারে।  

এডিটিং করার জন্য সাধারনত আপনাদের ইন্টারনেট ভালোভাবে সাউন্ড কোয়ালিটি চেক করার জন্য বক্স বা ভালো একটি হেডফোন এর প্রয়োজন হবে। 

  • ইউটিউব বা গুগল থেকে রিচার্জ করা

এরপরে আপনাকে ইউটিউবার গুগলে সার্চ করে ভিডিও এডিটিং বিষয়ে রিচার্জ করতে হবে,  আপনি যদি একটি বিষয় নিয়ে বেশি ঘাটাঘাটি করেন তাহলে ওই বিষয়ের উপর আপনার সম্পূর্ণ জ্ঞান অর্জন হবে যা আপনাকে ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখতে অনেক সহযোগিতা করবে।  তাই ভিডিও এডিটিং এর কাজ শেখার আগে অবশ্যই ভিডিও এডিটিং সম্পর্কে ইউটিউব বা গুগলে সার্চ করে টিটোরিয়াল গুলো দেখে নিবেন।  ইউটিউব ও গুগলে সার্চ করলে আপনারা ভিডিও এডিটিং বিষয়ে হাজার হাজার টিউটোরিয়াল ভিডিও পেয়ে যাবেন।

  • ভিডিও এডিটিং এর কোর্স করা

ভিডিও এডিটিং এর কাজ প্রফেশনাল ভাবে শিখতে হলে অবশ্যই আপনাকে একটি ভালো ইনস্টিটিউট থেকে ভিডিও এডিটিং বিষয়ে কোর্স করতে হবে।  বর্তমানে অনলাইনে এবং অফলাইনে বিভিন্ন আইটি ইন্সটিটিউট এর ভিডিও এডিটিং কোর্স পাওয়া যায় যেগুলো ক্রয় করে আপনারা ভিডিও এডিটিং সম্পর্কে জানতে পারবেন।

 ইউটিউব দেখে আপনারা ভিডিও এডিটিং এর বেসিক জিনিস গুলো জানতে পারবেন আপনি যদি অ্যাডভান্স লেভেলের কাজ শিখতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে কোন আইটি ইন্সটিটিউট থেকে কোর্স করতে হবে।  আপনাদের সুবিধার্থে আপনারা চাইলে অনলাইনের মাধ্যমে কোর্স ক্রয় করে করতে পারেন অথবা আপনার নিকটস্থ কোনো আইটি প্রতিষ্ঠান থেকে ভিডিও এডিটিং এর কোর্স করতে পারেন।

  • ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড

এরপরে ভিডিও এডিটিং করার ক্ষেত্রে সব থেকে জরুরি হলো ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড।  আপনারা কোন সফটওয়্যার এর মাধ্যমে ভিডিও এডিটিং করতে চাচ্ছেন সেই সফটওয়ারটি কে অনলাইন থেকে ডাউনলোড করে নিবেন,  আপনারা যে কোর্স করছেন সেই করছে আপনাকে শেখানো হবে কোনো একটি সফটওয়্যার দিয়ে ভিডিও এডিটিং সম্পর্কে।  আপনারা পরবর্তীতে এই সফটওয়্যারটি অনলাইন থেকে আপনাদের ডিভাইসে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন।

আরো পড়তে পারে: ভিডিও এডিটিং এর জন্য সবচেয়ে ভাল সফটওয়্যার কোনটি

মোবাইলে ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যারগুলোর

বর্তমান বাজারে মোবাইলে ভিডিও এডিটিং করার জন্য অনেক ভালো ভালো সফটওয়্যার পাওয়া যায় যেগুলো ব্যবহার করে যারা মোবাইল ভিডিও এডিটর আছেন তারা খুব সুন্দর ও প্রফেশনাল ভিডিও এডিটিং করতে পারবে।

  • Kinemaster

  • PowerDirector

  • ClipCut

  • FilmoraGo

  • YouCut

  • Filmmaker pro

  • Adobe Rush

  • Inshort

 ইত্যাদি, এই সকল সফটওয়্যার গুলো আপনারা ফ্রিতে প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন।

কম্পিউটারে ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার

কম্পিউটার দিয়ে একটি ভিডিওকে প্রফেশনাল ভাবে এডিট করতে আমাদের একটি প্রফেশনাল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড করার প্রয়োজন,  আমরা নিচে কয়েকটি প্রফেশনাল সফটওয়্যার এর নাম দিয়ে দিলাম আপনারা এই গুলো ব্যবহার করতে পারেন।র্

  • Adobe Premier Pro

  • Adobe After Effect

  • Corel Video Studio

  • Filmora

  • Final Cut Pro

  • OpenShot

  • ShotCut

এই সফটওয়্যার গুলো ব্যবহার করে আপনারা কম্পিউটার দিয়ে প্রফেশনাল ভাবে ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন।

  • অনেক বেশি প্রাকটিস করা

শুধুমাত্র আমরা অনলাইনে কোর্স করে ভালোভাবে ভিডিও এডিটিং শিখতে পারবো না,  কোর্স করার পাশাপাশি আমাদের বাসায় বসে ভিডিও এডিটিং নিয়ে প্র্যাকটিস করতে হবে।  একজন প্রফেশনাল ভিডিও এডিটর হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে ভিডিও এডিটিং নিয়ে আপনাকে প্রচুর ঘাটাঘাটি করতে হবে এবং এর উপরে অনেক পরিশ্রম করতে হবে।

 আপনারা নিজেরা যত প্র্যাকটিস করবেন ভিডিও এডিটিং নিয়ে আপনি ততো ভালো ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন। তাই ভিডিও এডিটিং শেখার ক্ষেত্রে প্র্যাকটিস করার কোন বিকল্প নাই, অবশ্যই আপনাকে ভালোভাবে এডিটিং প্র্যাকটিস করতে হবে।

আশা করি ভিডিও এডিটিং কিভাবে শিখব সে সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন ভিডিও এডিটিং শেখার ক্ষেত্রে সবথেকে বেশি প্রয়োজন হবে আপনার নিজের আগ্রহ,  আপনার যদি এই বিষয়ের প্রতি আগ্রহ না থাকে তাহলে আপনি কোনোভাবেই ভালো একজন ভিডিও এডিটর হতে পারবেন না।

Nayem Nafi

হাই আমি নাঈম নাফি, শখের বসে লেখালেখি শুরু। নিত্য নতুন প্রযুক্তিগত সমাধান জানার চেষ্টা করি এবং আপনাদের সাথে শেয়ার করি।বর্তমানে কাজ করছি ইউটিউব, ফ্রিল্যান্সিং আর বিগেইনার ব্লগার হিসেবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top